ওয়েব এবং প্রোগ্রামিং ভাষার একটি সংক্ষিপ্ত পর্যালোচনা

  • by
ওয়েব প্রোগ্রামিং ভাষা

ওয়েব ভাষায় কোনও বিষয় প্রকাশ করা হলেও তা মূলত নিয়ন্ত্রন করে ওয়েব প্রোগ্রামিং ভাষা। নিচের আলোচনায়, আজ আমরা ওয়েব ভাষা ও ওয়েব প্রোগ্রামিং ভাষার মধ্যে মূল পার্থক্যগুলো তুলে ধরবো।

ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব আজ যে কোনও পাবলিক মিডিয়ামের প্রাণ। এবং এটা এমন একটি যোগাযোগ ব্যবস্থা হয়ে উঠেছে যা জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যাপকভাবে গৃহীত হচ্ছে। এর ফলে, আমাদের জীবনযাত্রায় জাদুকরী পরিবর্তন এসেছে। বলতে দ্বিধা নেই, প্রযুক্তি বিশ্ব বর্তমানে তাঁর যৌবনের সুবর্ণ যুগ পার করছে… তবে, ভবিষ্যতে আমাদের জন্য আরও কী কী অপেক্ষা করছে তা আমরা জানি না। (সম্ভবতঃ আরও বেশী চিত্তাকর্ষক এবং মূল্যবান কিছু যা আমাদের জীবনকে আরও সহজ করে তুলবে)।

আর নতুন প্রযুক্তি এবং ওয়েবে সব কিছুর সহজলভ্যতা ও তুলে ধরার সক্ষমতা ব্যবসায়িক বাজারের জন্য একটি বড় সমাধান হয়ে উঠেছে। হ্যাঁ, এখন এটা একটি প্রমাণিত সত্য যে, যদি আপনি প্রযুক্তির জগতে আপনার উপস্থিতি নিশ্চিত করেন, তবে আপনি নির্দিষ্ট পণ্যের বাজারটি অনায়াসে জিতে যাবেন।

আমার এই নিবন্ধটির উদ্দেশ্য, আপনাকে আপনার ব্যবসায়ের জন্য নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করতে রাজি করা নয়। তবে এই নিবন্ধে, আমি প্রযুক্তি জগতে যারা ক্যারিয়ার গড়তে চান এমন লোকদের জন্য কিছু সাধারণ নির্দেশিকা শেয়ার করবো।

আপনাকে আমি প্রযুক্তি নির্ভর কোনও ব্যবসায়ের বা কৌশলের কোনও দীর্ঘ তালিকা দিতে চাই না, যা আপনি আপনার ব্যবসায়ের জন্য প্রয়োগ করতে পারেন। (কারণ আপনি কি উদ্দেশ্য নিয়ে প্রযুক্তি ব্যবহার করবেন, সে সম্পর্কে ভালোই জানেন। এখানে আমি কেবল নিজস্ব ভাবনা প্রকাশের জন্য ওয়েব ভাষা ব্যবহারের কিছু কৌশল শেয়ার করতে চাই)।

আমি কোনও ব্যবসায়িক কৌশলবিদ নই এবং এই নিবন্ধটির উদ্দেশ্যও কোনও ব্যবসায়িক কৌশল সম্পর্কে আপনাকে অবগত করা নয়, এটা কেবল তাদের জন্য উদ্দেশ্য করে লেখা, যারা ওয়েব ডিজাইন এবং ওয়েব প্রকাশনী সম্পর্কে আগ্রহী কিন্তু এখনো জানেন না কোথা থেকে শুরু করবেন।

ওয়েব ভাষা ও ওয়েব প্রোগ্রামিং ভাষার মধ্যে পার্থক্য

আসলে, ওয়েব ভাষা কিছু শব্দগুচ্ছের মতোই সাধারণ এবং ওয়েব প্রোগ্রামিং ভাষা হচ্ছে মূল বিষয় যা দিয়ে কোনও প্রকাশ করাকে নিয়ন্ত্রন করা হয়। যখন আমরা কথা বলতে চাই, আমাদের মস্তিষ্ক প্রথমে এই সম্পর্কে চিন্তা করে এবং শব্দ সাজায় এবং আমাদের মুখকে তা প্রকাশ করার আদেশ দেয়। এ কারণেই আমরা মুখে কথা বলি এবং হাতে লিখি। তবে এর পিছনে মস্তিষ্কের ক্রিয়াটি কিন্তু আমরা দেখতে পাই না। মস্তিষ্কের মতোই, যখন আমরা ওয়েব ব্রাউজারের দ্বারা কোনও ওয়েবপেজকে খুলতে অনুরোধ করি, তখন সার্ভারে সংরক্ষিত প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ সেই পেইজটি তৈরি করে এবং নির্দিষ্ট ওয়েব ভাষায় তা প্রকাশ করে। এবং আমরা কেবল এইচটিএমএল পেইজটি দেখতে পাই, তবে আমাদের ওয়েব ব্রাউজারে কোনও পিএইচপি স্ক্রিপ্ট দেখতে পাই না।

অন্য কথায়, এইচটিএমএল, সিএসএসের মতো ওয়েব ভাষাগুলো ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে পড়া হয়। তবে, মূল স্ক্রিপ্ট পিএইচপি, এএসপি ডট নেট ইত্যাদি দ্বারা রচিত হয়। এবং ওয়েব সার্ভারের মাধ্যমে এই স্ক্রিপ্টের ভাষা পরিচালিত হয় এবং প্রয়োজনমতো ওয়েব ব্রাউজারে প্রেরণ করে থাকে। ওয়েব প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হলো মস্তিষ্কের মতো, যেখানে আপনি নিজের চিন্তাভাবনা এবং আপনি যে শব্দগুলো প্রকাশ করতে চান তা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।

আশা করি, আপনি এখন ওয়েব ভাষা এবং ওয়েব প্রোগ্রামিং ভাষার মধ্যে বিদ্যমান পার্থক্যগুলো বুঝতে পেরেছেন। আমরা আমাদের পরবর্তী নিবন্ধে সেগুলো শেখার কৌশল নিয়ে আলোচনা করবো। আজ এ পর্যন্তই। সবাই ভালো থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.